শ'ঙ্কামুক্ত বর-কনে, ক্ষণে ক্ষণে কেঁদে উঠছেন

রাজধানীর উত্তরায় বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট প্রকল্পের ফ্লাইওভা'রের ভায়াডাক্ট চাপায় পিষ্ট প্রাইভেট'কারে বেঁচে যাওয়া নবদম্পতি শ'ঙ্কামুক্ত রয়েছেন। তাদেরকে উত্তরার একটি বেসরকারি হাসপাতা'লে ভর্তি করা হয়েছে। জরুরি বিভাগে পর্যবেক্ষণে রেখেছেন চিকিৎসকেরা।

এ ঘটনায় যারা মা'রা গেছেন, তারা হলেন বরের বাবা, কনের মা, কনের খালা ও খালাতো ভাই এবং বোন। সোমবার বিকেলে উত্তরায় জসিমউদ্দীন মোড়ে প্যারাডাইজ টাওয়ারের সামনে এই দুর্ঘ'টনা ঘটে। বেঁচে ফেরা দুইজন হলেন ২৬ বছর বয়সী হৃদয় ও ২১ বছর বয়সী রিয়ামনি, যাদের বিয়ে হয়েছে গত শনিবার। আজ ছিল বউভাত। ছে'লের বাড়ি রাজধানীর কাওলায়। বউভাত শেষে মে'য়ের বাড়ি আশুলিয়ায় নিয়ে যাচ্ছিল। গাড়িটি চালাচ্ছিলেন ছে'লের বাবা রুবেল মিয়া। ছিলেন মে'য়ের মা ফাহিমা বেগম, তার বোন ঝর্ণা বেগম এবং তার দুই সন্তান ৬ বছর বয়সী জান্নাত ও ২ বছর বয়সী জাকারিয়া। তাদের সবাই মা'রা গেছেন।

এদিকে পরিবারের সদস্যদের হারিয়ে ক্ষণে ক্ষণে হাউমাউ করে কেঁদে উঠছেন নবদম্পতি। এসময় তাদের পরিবারের সদস্যদের সান্ত্বনা দেওয়ার চেষ্টা করতে দেখা গেছে। সোমবার রাতে হাসপাতালটিতে গিয়ে দেখা যায় এমন দৃশ্য।

জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ড. এন আলম মাসুদ জানান, শুধু হৃদয়ের ডান পায়ে সামান্য আ'ঘাত রয়েছে। এছাড়া দুজনেই অক্ষত বলা যায়। তাঁদের শারীরিক কোনো সমস্যা নেই। তবে মানসিক ট্রমা কাটিয়ে উঠতে সময় লাগবে।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!