অসহায়ের মত দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে গাড়ির ভেতর ওদের ম'রতে দেখলাম: কনের মামা

সবে বিয়ে হয়েছিল হৃদয়-রিয়ার, উৎসবের আ'মেজেই ছিলেন সবাই। মে'য়ে পক্ষের বাড়িতে যাওয়ার সময় উত্তরায় বিআরটি প্রকল্পের গা’র্ডার পড়ল গাড়িতে, দুটি পরিবারের উৎসব রূপ নিল শো’কের মাত’মে। নব দম্পতি গু’রুত’র আ’হত হয়ে যখন উত্তরার ক্রিসেন্ট হাসপাতা'লে কাতরাচ্ছিলেন, তখনও তাদের পারবারের পাঁচ সদস্য চা’পা পড়ে ছিলেন গার্ডারের নিচে চিড়ে চ্যা’প্টা হওয়া গাড়ির ভেতর।

রিয়ার মামা শুভ ক্ষো’ভের সঙ্গে বললেন, দুর্ঘ'টনার পর যখন আসি, তখনও উপর থেকে গার্ডার স’রাতে পারলে সবাইকে ম’রতে হত না। দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে অসহা’য়ের মত ওদের ম’রতে দেখলাম। হৃদয় ও রিয়ার বিয়ে হয় গত শনিবার। সেদিনই দক্ষিণখান থা'নার কাওলায় স্বামীর বাড়িতে আসেন তিনি। রীতি অনুযায়ী তাকে আশুলিয়ার খেজুরবাগান এলাকায় বাবার বাড়িতে নিয়ে যেতে ১২ জন এসেছিলেন হৃদয়দের বাড়িতে। সেখান থেকে দুটি গাড়িতে আশুলিয়ায় ফেরার পথে ঘটে দু’র্ঘট’না।

শুভ জানান, নব দম্পতির সাথে আরও পাঁচজন ছিলেন প্রাইভেট কারে। আর অন্য আত্মীয়রা মাইক্রোবাসে যাচ্ছিলেন। প্রাইভেট কারটি যখন জসীম উদ্দীন এলাকায় দুর্ঘট’নায় পড়ল, তখন তাদের মাইক্রোবাস বিমানবন্দরের কাছে। একজন ফোন দিয়ে জানাল, সামনের গাড়ি দু’র্ঘটনা’য় পড়েছে। কিন্তু আমাদের গাড়ি এগোতে পারছিল না, দুর্ঘ’টনার কারণে সামনে রাস্তা বন্ধ হয়ে গেছে। আম'রা তখন গাড়ি থেকে নেমে দৌড়ে চলে আসি।”

গাড়িতে থাকা সাত জনের মধ্যে হৃদয় (২৬) ও রিয়া মনি (২১) জানালার ধারে থাকায় তাদের টেনে বের করে দ্রুত হাসপাতা'লে পাঠানো সম্ভব হলেও দুই শি'শুসহ বাকি পাঁচজন ভেতরেই আ’ট'কা পড়ে থাকেন।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!