ফ্রিজে রাখা বিরিয়ানি খেয়ে মুহূর্তেই নিথর হলো ভাই-বোন

শরীয়তপুরের জাজিরায় ফ্রিজে থাকা বাসি খাবার খেয়ে অ'সুস্থ হয়ে ভাই-বোনের মৃ'ত্যু হয়েছে। তাদের আর এক বোন অ'সুস্থ হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতা'লে ভর্তি আছে বলে জানা যায়।
গতকাল মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) রাতে উপজে'লার বিলাসপুর ইউনিয়নের মুলাই ব্যাপারীকান্দি গ্রামে এ মৃ'ত্যুর ঘটনা ঘটে।

নি'হত সৌরভ মিয়া (৬) ও খাদিজা আক্তার (৪) মুলাই ব্যাপারীকান্দি গ্রামের শওকত দেওয়ান ও আইরিশ বেগম দম্পতির সন্তান। আর আ'হত সাথী আক্তার (১৪) নি'হতদের বড় বোন।

নি'হতর পরিবার ও স্থানীয় সূত্র জানায়, গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে জাজিরা উপজে'লার মুলাই ব্যাপারীকান্দি এলাকার রওশনা বেগম তার বাসার ফ্রিজের বাসি (বিরিয়ানি) খাবার গরম করে সৌরভ, খাদিজা ও সাথীকে খাওয়ায়। তখন তিনজনই অ'সুস্থ হয়ে পড়ে। পরে রাতে বেশি অ'সুস্থ হয়ে পড়লে তাদের জাজিরা উপজে'লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতা'লে প্রেরণ করেন। ঢাকা মেডিকেলে নেয়ার পথে সৌরভ ও খাদিজা মা'রা যায়। বুধবার জানাজা শেষে তাদের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। আর সাথীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতা'লে ভর্তি করা হয়েছে। সে এখন আশ'ঙ্কামুক্ত আছে।

জাজিরা উপজে'লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক সাকিল আহমেদ জানান, রাতে ওই শি'শুদের হাসপাতা'লে নিয়ে আসলে আশ'ঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতা'লে প্রেরণ করা হয়। গরমে বাসি ও পঁচা খাবার খাওয়ার ফলে ফুড পয়জনিং হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মা আইরিশ বেগম বলেন, আমা'র জা রওশনা বেগমের সঙ্গে আমাদের কোনো শত্রুতা নেই। আদর করে আমা'র বাচ্চাদের তিনি খাবার দেন। খাবার খেয়ে আমা'র সন্তানরা মা'রা গেছে। এক মে'য়ে হাসপাতা'লে ভর্তি। আমা'র ভাগ্যে ছিল। তা না হলে এমন ঘটনা ঘটবে কেন?

বিষয়টি নিশ্চিত করে জাজিরা থা'নার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি। খোঁজ নিয়ে দেখছি। তবে এ ব্যাপারে কেউ অ'ভিযোগ নিয়ে থা'নায় আসেনি।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!