ঢাবিতে মে'য়েদের ওয়াশরুমে ঢুকে ছাত্রলীগ নেতার কা'ণ্ড

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) মে'য়েদের ওয়াশরুমে ঢুকে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছা'ত্রীকে হে'নস্তার অ'ভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় এক নেতার বি'রুদ্ধে। অ'ভিযু'ক্ত তানজীন আল আলামিন মে'য়েদের ওয়াশরুমে প্রবেশের কথা স্বীকার করলেও কাউকে হে'নস্তা করা হয়নি বলে দাবি করেছেন।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সংস্কৃতিবিষয়ক উপসম্পাদক তানজীন আল আলামিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিকেন্দ্রিক সংগঠন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আবৃত্তি সংসদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি।

অ'ভিযোগ করা ছা'ত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। তিনি বুধবার রাত ৮টা ২০ মিনিটে টিএসসিতে এই ঘটনার শিকার হন বলে দাবি করেছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গো'লাম রব্বানীর পরাম'র্শে তিনি সহকারী প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোহাম্ম'দ মাহবুবুর রহমানের কাছে লিখিত অ'ভিযোগ দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

অ'ভিযোগ ইমেইলে পেয়েছেন জানিয়ে ড. মোহাম্ম'দ মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘এটি খুব দুঃখজনক ঘটনা। আমাদের যা করণীয় আম'রা সেটি করব।’

ছা'ত্রীর অ'ভিযোগ, ‘গত ১৭ আগস্ট রাত আনুমানিক ৮টা ২০ মিনিটে আমি টিএসসিতে নারীদের জন্য নির্ধারিত ওয়াশরুম ব্যবহার করছিলাম। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী তানজীন আল আলামিন ম'দ্যপ অবস্থায় নারীদের ওয়াশরুমে ঢোকেন। তিনি একটি টয়লেটের দরজা খোলা রেখে অর্ধন'গ্ন হয়ে মূত্রত্যাগ করতে থাকেন। একপর্যায়ে তিনি আমা'র দিকে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করেন।

‘এতে আমি প্রচণ্ড ভীত ও উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ি। পরে আমি বন্ধুদের নিয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তাচ্ছিল্যের সুরে কথা বলতে থাকেন। তিনি ভুল স্বীকার করেননি। বরং তার সঙ্গে থাকা কয়েকজন আমাকে দেখে নেয়ার হু'মকি দেন। এমতাবস্থায় আমি হয়'রানি ও হু'মকির প্রেক্ষিতে অনিরাপদ বোধ করছি এবং মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছি।’

অ'ভিযু'ক্ত ছাত্রলীগ নেতা ও তার সহযোগীদের কঠোর শা'স্তির দাবি করেছেন শিক্ষার্থী।

এদিকে অ'ভিযোগের বিষয়ে তানজীন আল আমিন বলেন, ‘আমি মে'য়েটাকে কোনোভাবে হে'নস্তা করিনি। সে সময় আমি প্রাকৃতিক ডাকের চাপে ছিলাম। তাই ভুল করে মে'য়েদের ওয়াশরুমে ঢুকে গেছি।’

‘ভুল বুঝতে পেরে আমি বের হয়ে পুরুষদের ওয়াশরুমে গেছি। পরে মে'য়েটি এবং তার বন্ধুরা আমাকে জিজ্ঞাসা করেছেন। আমি তাকে এবং তার বন্ধুদের বারবার সরি বলেছি। আমি যখন হলে চলে আসি, তখন তারা আমাকে ফোন করেন। তখনও আমি বারবার সরি বলেছি। এটি মিস আন্ডারস্ট্যান্ডিং হয়েছে। এখন আমি মে'য়েটির সাথে সরাসরি দেখা করব। তিনি যেভাবে বলবেন, সেভাবে করব আমি।’

ম'দ্যপ থাকার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘মে'য়েটার হয়তো এ রকম মনে হয়েছে। এ ব্যাপারে আমি কিছু জানি না।’

সূত্র-নিউজবাংলা

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!