সৌদি যাওয়ার পরের দিনই দুর্ঘ'টনায় প্রা'ণ গেলো জিলানীর

স্বপ্ন ছিল পরিবারের মুখে হাসি ফুটাবেন। আর সেই লক্ষ্যে সুদূর সৌদি আরব পাড়ি জমান দাগনভূঁইয়া উপজে'লার জায়লস্কর ইউপির নেয়াজপুর গ্রামের খায়েজ আহমেদ চৌধুরীর বড় পুত্র তরুণ আব্দুর কাদের জিলানী।

সৌদি সময় গত মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে ম'দিনা শহরে পৌঁছান তিনি। আর বুধবার দেশটিতে সড়ক দুর্ঘ'টনায় মা'রা যান তিনি। ম'দিনা শহর থেকে ইয়ানবু শহরে যাওয়ার পথে এ দুর্ঘ'টনা ঘটেছে। সন্তানের মৃ'ত্যুতে তার মা পাগল প্রায়ই। সন্তানের জন্য বারবার বেহুশ হয়ে পড়চেন তিনি। ঘটনাটি জানার পর দূর দূরান্তের বহু মানুষ তাদের বাড়িতে ভীড়েছেন।

গ্রামের মানুষ জানান, ৫ ওয়াক্ত নামাজে রাস্তায় যাকে পেতেন তাকেই বলতেন তার জন্য দোয়া করার জন্য। এখন সেই ছে'লে শেষ বিদায় নিবে তা জানতেনই বা কে? ছে'লের ম'রদেহ দেশে ফিরিয়ে আনতে সরকারের কাছে সহযোগিতা চেয়েছেন বাবা খায়েজ আহম'দ।

খায়েজ আহম'দ বলেন, ভাগ্যের কী' নি'র্মম পরিহাস, সৌদি যাওয়ার পরদিনই সড়ক দুর্ঘ'টনায় আমা'র বড় ছে'লে মা'রা গেল। তার স্বপ্ন ছিল সৌদি আরব যাবে। সেখানে গিয়ে কিছু একটা করবে। ছোট ভাই-বোনকে নিয়ে নতুন নতুন স্বপ্ন দেখত। কিন্তু সব স্বপ্ন তার নিমেষেই শেষ হয়ে গেল। তিনি জানান, কাদের চার ভাই-বোনের মধ্যে সবার বড়। ছোট এক বোন আলিম পরীক্ষার্থী, আরেক বোন অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী এবং ছোট ভাই ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ছে।

স্থানীয় জায়লস্কর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মামুনুর রশীদ জানান, ছে'লেটি খুবই নম্র-ভদ্র ছিল।আমি ছে'লেটিকে খুব ভাল করে চিনতাম।তার মৃ'ত্যুতে খুব আ'ঘাত পেলাম।তাকে দেশে ফিরাতে সকল উদ্যোগ আম'রা গ্রহন করেছি।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!