ধুমধাম আয়োজনে এতিমকে বিয়ে দিলেন ডিসি

ফরিদপুরে ধুমধাম অনুষ্ঠান করে এতিম আঙ্গুরীর বিয়ের ব্যবস্থা করেছেন ফরিদপুর জে'লা প্রশাসক অ'তুল সরকার (ডিসি)।

শনিবার (২০ আগস্ট) ধুমধাম আয়োজনের মধ্য দিয়ে সম্পন্ন হয়েছে ফরিদপুর শেখ রাসেল শি'শু প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের আঙ্গুরীর বিয়ে। বাবা মা না থাকলেও কোন কমতি ছিলো না তার বিয়ের আয়োজনে। এ বিয়ের অনুষ্ঠানে ৬’শ মানুষের আপ্যায়নের ব্যবস্থা করা হয় এবং তাদের মধ্যে বরযাত্রী ছিল ৫০ জন। ২ লাখ টাকা দেনমোহর ধার্য করে বিয়ে হয় আঙ্গুরীর।

এদিকে বর মুরাদ সরদার ফরিদপুর সদর উপজে'লার বায়তুল আমান এলাকার ইউনুছ সরদারের ছে'লে।

জানা যায়, ফরিদপুর সদর উপজে'লার বায়তুল আমানের বাসিন্দা আঙ্গুরীর বাবা আবু তা'লেব শেখ। জন্মের আগেই তিনি তার বাবাকে হারান এবং চার বছর বয়সে সড়ক দুর্ঘ'টনায় মা ঝর্না বেগম ও মা'রা যায়। এরপর বাবা মা হারিয়ে আঙ্গুরী তার নানির কাছে কিছুদিন অবস্থান করেন কিন্তু কিছুদিনের মধ্যে নানিও চলে যান পরপারে। এসময় স্থানীয় এক সমাজকর্মীর মাধ্যমে আঙ্গুরীর জায়গা হয় ফরিদপুর শেখ রাসেল শি'শু প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে।

কেন্দ্রের উপ-প্রকল্প পরিচালক সৈয়দা হাসিনা আক্তার বলেন, ‘আঙ্গুরী যখন এখানে আসে তখন তার বয়স ছিল পাঁচ বছরের একটু বেশি। এখন আঙ্গুরীর বয়স ১৮ বছর। দীর্ঘ ১২টি বছর সে এখানে ছিল। ১৮ বছর হওয়ার পর সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক আম'রা তার জন্য উপযু'ক্ত পাত্র খুঁজতে থাকি। ওর দাদাবাড়ির এলাকারই একজন পাত্র পেয়ে যাই। ছে'লে ফার্নিচারের কাজ করে। মধ্যবিত্ত মু'সলিম পরিবারের একটি মে'য়ের যেভাবে বিয়ে হয়, ঠিক সেভাবেই আয়োজন করা হয়েছে। কোনো কিছুর কমতি করা হয়নি।

বিয়েতে অ'তিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জে'লা প্রশাসক অ'তুল সরকার, সমাজসেবা অধিদপ্তরের পরিচালক মো. কাম'রুল ইস'লাম, জে'লা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামীম হক, সাধারণ সম্পাদক শাহ মো. ইশতিয়াক আরিফ, উপজে'লা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক মোল্যা, পৌর মেয়র অমিতাভ বোস, ফরিদপুরে কর্ম'রত বিভিন্ন দপ্তরের কর্মক'র্তা, সাংবাদিক, সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ, এনজিও ব্যক্তিত্ব, ব্যবসায়ীসহ ৬ শতাধিক অ'তিথি।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!