আমি রোজ দুবেলা কোরআন পড়ি: শামীম ওসমান

এবার নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান বলেছেন, আল্লাহ এবং আল্লাহর রসুলকে (স.) পেতে হলে কিছু সোর্স লাগে। সব বান্দা যদি সমান হতো তাহলে তো দুনিয়া বেহেশত হয়ে যেত, কিন্তু সব বান্দা তো সমান নয়। কিছু পরশ পাথর লাগে। যে পাথরের ঘষায় আম'রা নিজেদের পবিত্র করতে পারি। ইস'লামকে জ'ঙ্গিবাদ বানিয়ে দেওয়া হয়, ইস'লামে জ'ঙ্গিবাদের কোনো স্থান নেই। এমনকি কোনো ধ'র্মেই নেই। গতকাল শনিবার ২০ আগস্ট শহরের শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে বিশ্ব জাকের মঞ্জিল দরবার শরিফ দিবস-২০২২ উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ জে'লা ও মহানগরের কেন্দ্রীয় মিশন সভায় আমন্ত্রিত অ'তিথি হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় শামীম ওসমান বলেন, কোনো ধ'র্মই খা'রাপ কিছু সম'র্থন করে না। ইস'লাম হল শান্তির ধ'র্ম। আর শান্তির বিধান হল কোরআন। আমি কোরআন পড়ি রোজ দুবেলা। কোরআনে স্পষ্ট লেখা আছে, কেউ যদি একজন নিরপরাধ মানুষকে হ'ত্যা করল, তাহলে সে সমস্ত মানুষকে হ'ত্যা করল। আর কেউ যদি একজন মানুষের জীবন রক্ষা করল, সে যেন পৃথিবীর সমস্ত মানুষের জীবন রক্ষা করল। মানুষ বলা হয়েছে, হিন্দু, মু'সলিম, বৌদ্ধ কিংবা খ্রিস্টান বলা হয়নি। বলা হয়েছে যেই এলাকায় মু'সলিম বেশি থাকবে, সেই এলাকায় যদি কোনো বিধ'র্মী থাকে তবে তাদের দেখে রাখতে।

তিনি আরও বলেন, বেশি কিছু লাগে না, আল্লাহর নবী হ'জরত মুহাম্ম'দ (স.) এর বিদায় হ'জের ভাষণটিই যথেষ্ট। অল্প সময়ের সেই ভাষণে সারা পৃথিবীর সমস্ত সমস্যার সমাধান তিনি দিয়ে দিয়েছেন। সাদা আর কালার (বর্ণবাদ) মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই, কেউ কারও ওপর প্রভুত্ব করতে পারবে না, নারী ও পুরুষে কোনো পার্থক্য নেই। নারীর পুরুষের ওপর যেমন অধিকার আছে, তেমনি পুরুষের ওপর নারীর অধিকার আছে। শ্রমিকের মা'থার ঘাম পায়ে পড়ার আগেই তার মূল্য পরিশোধ করো, ধ'র্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি করো না, ধ'র্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে শেষ হয়ে যাবে। এ রকম বেশ কিছু পয়েন্ট তিনি উল্লেখ করেছেন।

শামীম ওসমান বলেন, পৃথিবীতে একটা সত্য সকলের সঙ্গেই ঘটবে, সেটা হল মৃ'ত্যু। আপনাকে আমাকে একদিন ম'রতে হবে ভাই, ম'রতে হবেই হবে। ওই কবর খোঁড়া হবে, মাটি চাপা দেওয়া হবে। সবাই বলবে দ্রুত মাটি চাপা দেন এবং খুব দ্রুত মাটি চাপা দেওয়া হবে। জবাব কী' দিব? আপনি যদি আপনার জবাব নিয়ে সন্তুষ্ট থাকেন তো বেশ। আমি আমা'র জবাব দেওয়ার চেষ্টা করতেছি। আমি প্রতি রাতে তাহাজ্জুদের সালাতের পর দুই রাকাত শুকরান সালাত আদায় করি, কারণ আল্লাহ আমাকে বাঁচিয়ে রেখেছেন। জেনে না জেনে করা পাপের জন্য দুই রাকাত তওবার সালাতও আদায় করি। কেন, কারণ সকাল বেলায় ঘুম থেকে আমি নাও উঠতে পারি।

তিনি বলেন, ইস'লাম ধ'র্ম শক্তির ধ'র্ম না, শান্তির ধ'র্ম। আমা'র আচার-আচরণ ও চাল-চলনে সন্তুষ্ট হয়ে মানুষ ইস'লাম গ্রহণ করবে, গায়ের জো'রে না। কিন্তু আম'রা কেন যেন ধ'র্মকে নষ্ট করে ফেলছি। ২০০১ এর পরে হতাশ হয়ে গিয়েছিলাম। দেশ ছেড়ে যেতে বাধ্য হয়েছিলাম, দিনে ১৮ ঘণ্টা কাজ করতাম। পকে'টে পয়সাকড়ি নেই। তবে যাদের কারণে দেশ ছাড়তে বাধ্য হয়েছিলাম তাদের প্রতি আমা'র কোনো আক্ষেপ নেই। বরং তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা স্বীকার করি। তাদের জন্যই আমা'র জীবন বদলে গেছে। একদিন গাড়িতে করে যাচ্ছিলাম, জাতির পিতার কন্যা শেখ হাসিনার সাথে কথা হচ্ছিল ফোনে, অনেক উল্টাপাল্টা কথাবার্তা বলছিলাম। আপা আমাকে বললেন, তুমি কি হতাশ হয়ে গেছো? হতাশ হলে নবী হ'জরত মোহাম্ম'দ (স.) এর জীবনী পড়। আল্লাহর রসুলকে যদি দুনিয়াতে এত ক'ষ্ট করতে হয়, তুমি আর আমি কে? সেদিনের সেই কথায় জীবন বদলে গেছে।

এ সময় সকলের কাছে জোড় হাতে ক্ষমা চান শামীম ওসমান। তিনি বলেন, আমা'র কারণে যদি কেউ ক'ষ্ট পেয়ে থাকেন তবে আমাকে ক্ষমা করে দেবেন। আজকে আছি কাল নাও বেঁচে থাকতে পারি। আমি কাল মা'রা গেলে হয়তো আমা'র ছে'লে বা ভাই আপনাদের কাছে ক্ষমা চাইবে। তার চেয়ে নিজের মাপ নিজে চাওয়া ভালো। আমি মানুষ তাই আমা'র ভুল হতেই পারে। তাই আপনাদের সকলের নিকট ক্ষমা চাই। আপনারা আমাকে আল্লাহর ওয়াস্তে মাফ করে দেবেন।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!