টাকা লাগলে টাকা দেবো, আমা'র স্বামীকে ফেরত চাই: থা'না হেফাজতে নি'হত সুমনের স্ত্রী'

শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ম’র্গে সুমন শেখের (২৭) ম'রদেহ। মাম’লা না করে স্বামীর ম’রদেহ নেবেন না স্ত্রী' জান্নাত আক্তার। মাম’লা করতে আসেন পুরান ঢাকার আ'দালতপাড়ায়। এসময় আ'দালত প্রাঙ্গণে শি'শুসন্তান রাকিবকে (৬) কোলে নিয়ে কা’ন্নায় ভে’ঙে পড়েন তিনি। কা’ন্নাজ'ড়িত কণ্ঠে স্বামী হ’ত্যা’র ন্যায়বিচার দা’বি করেন এ নারী।

রাজধানীর হাতিরঝিল থা’না হেফাজতে সুমন শেখ নামে যুবকের মৃ’ত্যুর ঘটনায় রোববার (২১ আগস্ট) দুপুরে পুরান ঢাকার আ'দালতে মাম’লা করতে আসেন স্ত্রী' জান্নাত। চু’রির মাম’লার আসা’মি সুমন থা'না হাজতের ভেতর আ’ত্মহ’ত্যা করেছেন বলে দা’বি পু'লিশের। তবে পরিবারের দা’বি, সুমনকে থা'না হেফাজতে পি’টিয়ে হ’ত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় বিক্ষু’ব্ধ স্বজন ও এলাকাবাসী গতকাল শনিবার হাতিরঝিল থা'নার সামনে বিক্ষো’ভ করেন।

এরই মধ্যে হাতিরঝিল থা'নার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হেমায়েত হোসেন ও কনস্টেবল মো. জাকারিয়াকে দায়ি’ত্বে অবহে’লার অ'ভি’যোগে সাময়িক বরখা’স্ত করা হয়েছে। ঘটনা তদ’ন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে পু'লিশ। এদিকে আ’দালতে মাম’লা করতে এসে সুমনের স্ত্রী' জান্নাত বলেন, দেশে বি’চার আছে। সে চু’রি করলে তার বি’চার হবে। থা'না হেফাজতে তাকে হ’ত্যা করা হলো কেন? ইউনিলিভা'রের পিওরইট কোম্পানি ও পু'লিশ আমা'র স্বামীকে হ’ত্যা’ করেছে।

আমা'র কাছে পু'লিশ পাঁচ লাখ টাকা দা’বি করেছিল। টাকা না দেওয়ায় তাকে হ’ত্যা’ করা হয়েছে। স্বামীকে হা’রিয়ে শোকবিহ্বল এ নারী আরও বলেন, এখন আমি আমা'র শি'শুসন্তানকে নিয়ে কোথায় যাবো। কোথায় দাঁ’ড়াবো। টাকা লাগলে টাকা দেবো। আমি আমা'র স্বামীকে ফেরত চাই। এ হ’ত্যাকা’ণ্ডের সু’ষ্ঠু বি’চার চাই।

গতকাল শনিবার (২০ আগস্ট) সুমন শেখের স্ত্রী' জান্নাতের বড় ভাই মোশাররফ হোসেন জানান, রাতে থা'না থেকে বলা হয় সুমনের ম’রদেহ নিতে হাতিরঝিল থা'না থেকে তাদের পাঠানো হয় শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ম’র্গে।

সেখানে রাত ৮টার পর ম’রদেহ গো’প’নে নিয়ে যেতে বলে পু'লিশ। কিন্তু তারা ম’রদেহ নেননি। ম'রদেহ না নিয়ে তারা বাসায় চলে যান। রোববার সকালে এ ঘটনায় ইউনিলিভা'রের পিওরইট কোম্পানি ও পু'লিশের বিরু’দ্ধে মাম’লা করা হবে। মাম’লা দায়ে’রের পর পরিবার ম’রদেহ বুঝে নেবে।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!