ফ্লাইওভা'রের রড ঢুকে পড়ল আ.লীগ নেতার গাড়িতে

কিছুদিন আগেই উত্তরায় বিআরটি প্রকল্পের কাজ চলাকালে গার্ডার পড়ে পাঁচজনের মৃ'ত্যু হয়েছে। এর রেশ কাটতে না কাটতেই এবার টঙ্গীতে ঘটে গেছে অনাকাঙ্ক্ষিত এক ঘটনা। সেখানেও বিআরটি প্রকল্পের কাজ চলছে, অথচ নেই নিরাপত্তা বেষ্টনী। ফলে দুর্ঘ'টনার শিকার হয়েছেন এক প্রাইভেট'কারের ৫ আরোহী। টঙ্গীর কলেজ গেট এলাকায় নির্মাণাধীন উড়াল সড়কের ওপর থেকে রড এসে একটি চলন্ত প্রাইভেট'কারের ওপর পড়েছে। এতে গাড়িটির কাঁচ ভেদ করে রড ঢুকে যায় ভেতরে। তবে কারও ক্ষতি হয়নি। প্রা'ণে রক্ষা পেয়েছেন গাড়িতে থাকা পাঁচ আরোহী।

শুক্রবার (১৯ আগস্ট) বিকেলে ওই এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। প্রাইভেট'কারে ছিলেন গাজীপুর মহানগরীর ৩৪ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আবদুর রশিদ, তার স্ত্রী' রাজিয়া সুলতানা, দুই ছে'লে রুমান হোসেন ও মো. রাফি। চালকের আসনে ছিলেন সোহাগ মিয়া নামে একজন।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগ নেতা আবদুর রশিদ জানান, ঢাকার মিরপুর এলাকায় এক আত্মীয়ের বাসায় বেড়াতে গিয়েছিলেন পরিবারসহ। সেখান থেকে তারা বাসায় ফিরছিলেন।

বিকেল ৩টার দিকে টঙ্গীর কলেজ গেট এলাকায় পৌঁছলে নির্মাণাধীন বিআরটি প্রকল্পের উড়াল সড়ক থেকে একটি বড় রড প্রাইভেট'কারের ওপর পড়ে। এতে প্রাইভেট'কারের কাঁচ ভেঙে যায় এবং রডের মা'থা গাড়িতে ঢুকে যায়।

এ ঘটনার পরপরই লোকজন জড়ো হন। খবর পেয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন উপস্থিত হয়ে দুঃখ প্রকাশ করে। পাশাপাশি বিআরটির কর্মক'র্তারা বিষয়টি কাউকে না প্রকাশ করার অনুরোধও করেন। গাড়িটি মেরামত করতে তাকে ১০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ দিয়ে ক্ষমা চান। কিন্তু গাড়িটি ঠিক করতে তার আরও অনেক বেশি টাকা লাগবে বলে জানান তিনি।

এর আগে ওই দিন সকালেই গাজীপুরে বিআরটির চলমান কাজ পরিদর্শন করেন সেতু মন্ত্রণালয়ের মহাসড়ক বিভাগের সচিব এবিএম আমিন উল্লাহ নূরী এবং সেতু মন্ত্রণালয়ের সেতু বিভাগের সচিব মো. মনজুর হোসেন। পরিদর্শনকালে তারা ‘কয়েকটি স্থানে নির্মাণ কাজের সুরক্ষা ও নিরাপত্তার ঘাটতি রয়েছে’ জানিয়ে কর্মক'র্তাদের এ বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে পরাম'র্শ দেন। কিন্তু বিআরটি কর্তৃপক্ষ গুরুত্ব না দেওয়ায় ওই দুর্ঘ'টনাটি ঘটেছে।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!