প্রধানমন্ত্রীর জন্য আজ হাতে হাতে কম্পিউটার: ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী

এবার ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, আমাদের শিক্ষা-ব্যবস্থা যে কাগজ ভিত্তিক ট্র্যাডিশনাল ফরমেট ছিল সে ফরমেটেই বিরাজ করছে। আমা'র কাছে মনে হয়েছে আম'রা এ ফরমেট ভাঙবো। পৃথিবীর কোনো উন্নত দেশ আর কাগজ নির্ভর লেখাপড়ার ওপরে নেই। বাস্তব বইয়ের ডিজিটাল কনটেন্ট তৈরি করেছি। আম'রা এটা শুরু করেছি শি'শু শ্রেণি থেকে পঞ্চ'ম শ্রেণি পর্যন্ত। আমাদের কাছে সবচেয়ে সহ'জ মনে হয়েছে।

এদিকে আইসিটি বিভাগ বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে দেশের দুর্গম প্রত্যন্ত অঞ্চলে আম'রা টেলিকমিউনিকেশন সেবা দিতে পারি, একই সঙ্গে আম'রা শিক্ষার বিস্তারে সহায়তা করতে পারি। টেলিকমিউনিকেশন বিকাশের জন্য যে কাজটি করা দরকার তা আম'রা করছি। আম'রা দুর্গম, হাওর গুলোতে টেলিকম নেটওয়ার্ক গড়ে তোলেছি।

গতকাল বুধবার ২৪ আগস্ট বিকেল সাড়ে ৫টায় মুন্সিগঞ্জ সদরের জাজিরা কুঞ্জনগর ও বাঘাইকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ডিজিটাল কনটেন্ট ব্যবহার করে পাঠদান ও শ্রেণিকক্ষ পরিদর্শনে এসে এসব কথা বলেন তিনি।

এ সময় মন্ত্রী বলেন, ৬৫০টি প্রাই'মা'রি স্কুল এবং ২৮টা পাড়া কেন্দ্রে ডিজিটাল কনটেন্ট দিয়ে ক্লাসরুম তৈরি করা হয়েছে। আগামীতে ক্লাস গুলোতে বই ছাড়া পড়ানো সম্ভব হবে। আমি বিশ্বা'স করি বই থেকে যে লেখাপড়া করার সুযোগটা যদি একজন শিক্ষার্থী কাগজের বইয়ের মৃ'ত হরফ আর মৃ'ত ছবির বদলে একটা জীবন্ত ছবি দেখতে পায়, একটি চলমান ছবি দেখতে পায়, অক্ষর যদি কথা বলে, তার সঙ্গে যদি ইন্টারেকশন করতে পারে সেটা অসাধারণ একটি কাজ হয়ে যেতে পারে।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা আক্ষেপ করছে আম'রা টেলিভিশন দিয়ে পড়াচ্ছি হাতে কেনো ডিজিটাল যন্ত্র দিচ্ছি না। এটিও আমাদের পরিকল্পনা মধ্যে আছে। ৬৫০টি স্কুলের মধ্যে ৮০টি স্কুলে এই ধরনের যন্ত্র দিবো, এবং ধীরে ধীরে বাকি স্কুল গুলোকেও এভাবে সজ্জিত করবো। আমি বিশ্বা'স করি শি'শুদেরকে যদি হাতে কলমে শিক্ষা দেয়া যায় তবে তার সঙ্গে কোনো তোলনা হবে না।

মন্ত্রী বলেন, আম'রা প্রথমবারের মতো স্কুলে শি'শুদেরকে প্রোগ্রামা'র বানানোর জন্য যা দরকার একটি সফটওয়্যার দিচ্ছি আম'রা। যাতে তারা নিজেরা প্রোগ্রামা তৈরি করতে পারে। গেইম বানিয়ে তারা যেনো নিজেরা খেলতেও পারে। এটি যে দক্ষতা হবে তা সম্পূর্ণ একটি উন্নত দেশে দক্ষতা। এর মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিত, প্রত্যন্ত চর, হাওর, বিল এলাকায় আম'রা এটা আগে করবো।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারণে আজ হাতে হাতে কম্পিউটার পৌঁছেছে বলে মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে কম্পিউটার আসছে ১৯৬৪ সালে, পরবর্তীতে এর বিকাশ ঘটতে ঘটতে শেখ হাসিনা ৯৮-৯৯ সালে বাজেটে যখন কম্পিউটারের উপর শুল্ক তুলে দেয় তারপর থেকে হাতে হাতে কম্পিউটার গেছে। কিন্তু যে জায়গার মধ্যে আমাদের সংকট ছিল কম্পিউটার ব্যবহার করতে হয় কিভাবে তা আম'রা শিখছি, সফটওয়্যার বানাতে হয় সেটাও শিখছি। সফটওয়্যার আম'রা রপ্তানি করি।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!