চাঞ্চল্যকর মিতু হ'ত্যার মূল পরিকল্পনাকারী বাবুল, নেপথ্যে পরকী'য়া

চট্টগ্রামে চাঞ্চল্যকর মাহমুদা মিতু হ'ত্যার মূল পরিকল্পনাকারী তার স্বামী পু'লিশের সাবেক এসপি বাবুল আক্তার। একজন বিদেশি নারীর সঙ্গে পর'কী'য়া স'ম্পর্কের জেরে কলহের কারণে তিন লাখ টাকা খরচে স্ত্রী' মিতুকে খু'ন করান বাবুল। প্রচার করেন জ'ঙ্গি হা'মলা হিসেবে। প্রস্তুত হওয়া অ'ভিযোগপত্রে উল্লেখ রয়েছে এসব তথ্য। যা আ'দালতে জমা দেয়া হবে শিগগিরই। যাতে বাবুলসহ আ'সামি ৭ জন।

চট্টগ্রামের চাঞ্চল্যকর মাহমুদা মিতুর হ'ত্যা মা'মলার ত'দন্ত শেষপর্যন্ত গুছিয়ে এনেছে পিবিআই। সহসাই দেয়া হবে অ'ভিযোগপত্র।

অ'ভিযোগপত্রে, মিতু হ'ত্যার মূল পরিকল্পনাকারী হিসেবে দেখানো হচ্ছে তার স্বামী পু'লিশের সাবেক এসপি বাবুল আক্তারকে। বলা হয়, তিনিই তার বিশ্বস্ত সোর্স মু'সাকে কাজে লাগিয়ে তিন লাখ টাকার বিনিময়ে খু'ন করান মিতুকে। নিজেকে আড়াল করতে প্রচার করেন জ'ঙ্গি হা'মলা হিসেবে। যে কারণে মা'মলার বাদী বাবুল আক্তারকে করা হয় প্রধান আ'সামি। তিনিসহ মোট সাতজনকে অ'ভিযু'ক্ত করা হচ্ছে অ'ভিযোগপত্রে।

হ'ত্যার কারণ হিসেবে বলা হয়, বিদেশি নাগরিক গায়েত্রী অম'র সিংয়ের সঙ্গে বাবুলের পর'কী'য়া সর্ম্পক। যার বেশ কিছু তথ্য প্রমাণ পায় ত'দন্তকারী সংস্থা। তাদের স'ম্পর্কের ব্যাপারে জেনে যান মিতু। যা নিয়ে সৃষ্টি হয় পারিবারিক কলহ। এ কারণে মিতুকে খু'ন করান বাবুল।

অ'ভিযোগপত্রে কোনো ত্রুটি নেই, বাধা নেই আ'দালতে দাখিলে, এমন মত রাষ্ট্রপক্ষের কৌসুলির।

অ'ভিযোগপত্রে সাক্ষী থাকছে ৯৭ জন। এতে দায় স্বীকার করে জবানবন্দী আছে তিনজনের। বাবুল আক্তারসহ চারজন আছেন কারাগারে। জামিনে আছে ভোলা। হদিস মেলেনি মু'সা ও কালুর। ২০১৬ সালের পাঁচ জুন নগরীর জিইসি মোড়ে খু'ন হন মাহমুদা মিতু।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!