মাহির সঙ্গে জেনিফারের দ্বন্দ্বের অবসান

অবশেষে ঢাকাই সিনেমা'র চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি ও চিত্রনায়ক রোশনের সঙ্গে মুক্তি প্রতীক্ষিত সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত ‘আশীর্বাদ’ সিনেমা'র প্রযোজক জেনিফার ফেরদৌসের দ্বন্দ্বের অবসান ঘটলো। বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনে (বিএফডিসি) চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির উপস্থিতিতে তাদেরকে এক হতে দেখা যায়। সংগঠনটির সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চনের হস্তক্ষেপে এই বিরোধের মীমাংসা হয়েছে বলা জানানো হয়।

এদিন এফডিসিতে প্রেস ব্রিফিংয়ে মাহির বি'রুদ্ধে করা সব অ'ভিযোগ ‘ভুল’ বলে জানান, জেনিফার। একই সঙ্গে এই প্রযোজকের বি'রুদ্ধে আনা অ'ভিযোগগুলোও ‘ভুল’ বলে জানিয়েছেন মাহি। এই নায়িকা বলেন, ‘শিল্পীরা ফুলের মতো, খুবই নরম। শিল্পীদের যদি আদর করে কিছু বলা যায়, সবকিছু করা সম্ভব। ১২ ঘণ্টার জায়গায় ২৪ ঘণ্টা কাজ করানোও সম্ভব; আমি এমন অনেক কাজ করেছি। আমি আপুকে (জেনিফার ফেরদৌস) বলব, যেভাবে যা যা হয়েছে এসবকিছু কমিনিউকেশন গ্যাপের কারণে। যদি ফেসবুকে ম্যাসেঞ্জার একটি গ্রুপ যদি আশীর্বাদের হতো, সবকিছু শেয়ার করা হতো, তাহলে এটা হতো না। সিনেমাটি শুধু আপুর না, আমা'র রোশনের পরিচালকের। ’

তিনি আরো বলেন, ‘যা হওয়ার হয়ে গেছে। আমাকে নিয়ে আপু মুখে যখন অন্যরকম কথা শুনছিলাম, রেগে গিয়ে বলছিলেন, তখন আমা'রও মা'থা খা'রাপ হয়ে গিয়েছিল। যাইহোক, যে যাকে যা বলেছি সব ভু'য়া। ’

প্রযোজক জেনিফার ফেরদৌস বলেন, ‘বিগত তিন সপ্তাহ ধরে আমাদের ‘আশীর্বাদ’ সিনেমা'র একে অ'পরকে নিয়ে যে ধরনের বুলিং করা হচ্ছিল, সেটার আজ অবসান হলো। আমাদের মধ্যে যে ভুল বোঝাবুঝি ছিল তার সুরাহা হয়েছে। একজনের মাধ্যমে আসলে আমাদের কথাবার্তার ছড়িয়ে। এটা আম'রা এখন বুঝতে পেরেছি।’

এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন শিল্পী সমিতির সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন, পরিচালক সমিতির সভাপতি সোহানুর রহমান সোহান ও প্রযোজক শামসুল আলম, ‘আশীর্বাদ’ সিনেমা'র পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান মানিক ও চিত্রনায়ক জিয়াউল রোশনসহ অনেকে।

‘আশীর্বাদ’ সিনেমাটি মুক্তি পেতে যাচ্ছে ২৬ আগস্ট। এটি মুক্তিযু'দ্ধের সিনেমা, আবার এ সময়ের গল্পও দেখানো হয়েছে।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!