বিশালাকার জোড়া ভবন ভাঙা হবে কিছুক্ষনের মধ্যেই, ব্যাপক প্রস্তুতি

বিশেষ বি'স্ফো'রকের সাহায্যে ভেঙে ফেলা হবে ভা'রতের নয়ডার যমজ অট্টালিকা (টুইন টাওয়ার)। ৪০ তলার এই বহুতল ভবন ভাঙা ঘিরে নয়ডায় শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি তুঙ্গে। রবিবার (২৮ আগস্ট) দুপুর আড়াইটা নাগাদ এই টুইন টাওয়ার ভেঙে ফেলা হবে। ৪০ তলা এই টুইন টাওয়ার তৈরি করতে দীর্ঘ সময় লাগলেও তা ভাঙ্গা হবে মাত্র ৯ সেকেন্ডে।

বিশেষ বি'স্ফো'রকের সাহায্য নেওয়া হবে এই জোড়া টাওয়ার ভাঙ্গার জন্য। ডিটোনেটর, শক টিউবের মতো বি'স্ফো'রক ব্যবহার করা হবে। এই টুইন টাওয়ার ভাঙ্গার পর ৫৫ হাজার টন ধ্বংসাবশেষ তৈরি হবে, যা পরিষ্কার করতে সময় লাগবে অন্ততপক্ষে তিন মাস। নয়ডার সেক্টর ৯৩এ-তে এই বহুতলে সব মিলিয়ে মোট ৯০০টি ফ্ল্যাট ছিল। মোট সাড়ে ৭ লক্ষ বর্গফুট এলাকা জুড়ে রয়েছে এই টুইন টাওয়ার।

এই টুইন টাওয়ার ভেঙ্গে ফেলার জন্য প্রশাসনের তরফ থেকে বিশেষ নিরাপত্তার ঘোষণা করা হয়েছে। প্রায় ২ কিলোমিটার আশেপাশে কোন বিমান চলাচল করবে না। টুইন টাওয়ারে বি'স্ফোরণ করার পর যে পরিমাণে ধুলো তৈরি হবে তার জন্য এই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এছাড়াও প্রায় ৬০০ পু'লিশ আধিকারিক মোতায়েন করা হয়েছে এলাকায় এবং ২৬ থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত এই এলাকায় কোনরকম ড্রোন উড়ানো যাবে না।

কুতুব মিনারের চেয়েও লম্বা এই জোড়া টাওয়ার। এই জোড়া টাওয়ার ভেঙ্গে ফেলার কারণ হিসাবে রয়েছে নিয়ম না মেনে নির্মাণ করার। এই মা'মলায় সুপ্রিম কোর্ট এই জোড়া টাওয়ার ভেঙ্গে দেওয়ার নির্দেশ দেয়। যে দুটি বহুতল ভেঙে ফেলা হবে সেই দুটির একটির নাম অ্যাপেক্স এবং অন্যটির নাম সিয়ানে। দুটির উচ্চতা যথাক্রমে ১০০ মিটার ও ৯৭ মিটার।

এই জোড়া টাওয়ার সংলগ্ন এলাকায় বাস করে প্রায় ৫ হাজার পরিবার। রবিবার তাদের সকাল ৭টার মধ্যে নিরাপদ দূরত্বে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে এবং তাদের পুনরায় বিকেল ৪টের পর আবার তাদের ফিরিয়ে আনা হবে। সূত্র: আনন্দবাজার।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!