হঠাৎ রাজশাহীতে বন্ধ অটোরিকশা, মালিক সমিতির দাবি ‘বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্র’

হঠাৎ পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই রাজশাহী নগরীতে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন নগরীর যাত্রীরা। আজ রবিবার ২৮ আগস্ট সকাল থেকে নগরীতে অটোরিকশা চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে হঠাৎ কেন অটোরিকশা চলাচল বন্ধ রয়েছে এ বিষয়ে মহানগর ইজিবাইক মালিক-শ্রমিক সমবায় সমিতির সভাপতি বলছেন, ‘এটি বিএনপি-জামায়াতের পরিক'ল্পিত ষড়যন্ত্র।’

আজ দুপুরে নগরীতে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে বি'ক্ষোভ মিছিল করেছেন অর্ধশতাধিক চালক। ‘অটোর মালিক ও ড্রাইভা'র’ ব্যানারে এ বি'ক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। পরে সাহেব বাজারে মানববন্ধন করেন তারা। মানববন্ধন থেকে অটোরিকশার ভাড়া বাড়ানোর দাবি জানানো হয়।

এদিকে কয়েকজন অটোরিকশাচালক জানান, ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে অটোরিকশা মালিক সংগঠনের কয়েকজন নেতা রাস্তায় গাড়ি নামাতে দিচ্ছেন না। এজন্য হঠাৎ করে সকাল থেকে রাস্তায় গাড়ি নেই। তবে রাজশাহী মহানগর ইজিবাইক মালিক-শ্রমিক সমবায় সমিতির নেতারা বলছেন, তারা কোনও কর্মসূচি দেননি। একটি পক্ষ চক্রান্ত করে কয়েকজন চালককে রাস্তায় নামিয়ে বি'ক্ষোভ করাতে বাধ্য করেছেন।

এ সময় দেখা গেছে, দু’একটা অটোরিকশা চললেও সেগুলোতে ভাড়া চাইছে দুই-তিনগুণ বেশি। নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা, সাহেব বাজার, রেলগেট, লক্ষ্মীপুর, বাইপাস ও কোর্ট বাজারে দেখা গেছে, পাঁচ সিটের কোনও অটোরিকশা চলাচল করছে না। তিন সিটের অটোরিকশা চললেও যাত্রীদের জি'ম্মি করে তিন থেকে পাঁচ গুণ পর্যন্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন যাত্রীরা।

এদিকে নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা এলাকায় অটোরিকশাচালক মো. সোহেল বলেন, ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে সকাল থেকে অটোরিকশা চলাচল বন্ধ রেখেছেন চালকরা। দুপুরে বি'ক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছেন তারা। এতে আম'রা অংশ নিইনি। তাই রিকশা নিয়ে বের হয়েছি। নগরীতে রিকশা নেই বললেই চলে।

এ বিষয়ে রাজশাহী মহানগর ইজিবাইক মালিক-শ্রমিক সমবায় সমিতির সভাপতি শরিফুল ইস'লাম বলেন, ‘এটি বিএনপি-জামায়াতের পরিক'ল্পিত ষড়যন্ত্র। রিকশাচালকদের দিয়ে নগরীতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অ'পচেষ্টা করা হচ্ছে। এর সঙ্গে জ'ড়িতদের চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের বি'রুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!