সাকিবদের টিম হোটেলে হঠাৎ উপস্থিত পাপন-জালাল

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের শেষ ল'ড়াইটা বাঁ'চাম'রার। এ ম্যাচে যে কোনো মূল্য জয় পেতেই হবে লাল সবুজের প্রতিনিধিদের। ম্যাচের আগে অনুপ্রেরণা জোগাতে ক্রিকেটারদের টিম হোটেলে হঠাৎ উপস্থিত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন, ক্রিকেট অ'পারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুসসহ বোর্ডের একাধিক ক'র্তা।

সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বে নতুন শুরুর বার্তা দিলেও আ'ফগা'নিস্তানের বিপক্ষে দেখা গেল সে পুরনো বাংলাদেশকেই। ৭ উইকে'টের হারে এশিয়া কাপের আয়ু অনেকটা ক্ষীণ হয়ে এসেছে টাইগারদের জন্য। সুপার ফোর নিশ্চিত করতে হলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জিততেই হবে বাংলাদেশকে। অন্যথায় টাইগারদের এশিয়া কাপ যাত্রা শেষ হয়ে যাবে মাত্র তিন দিনেই।

এদিকে টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশকে শক্তিশালী দলে পরিণত করতে সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বিসিবি। কিন্তু তাতেও কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না। অধিনায়কের পরে পরিবর্তন হয়েছে কোচও। অথচ নতুন মোড়কে যেন সে পুরনো বাংলাদেশই ধ'রা দিচ্ছে বারবার। আ'ফগা'নিস্তানের বিপক্ষে হারে পিছিয়ে গেছে টাইগাররা। কিন্তু সুপার ফোরের আশা তো টিকে আছে। মিশন এবার শ্রীলঙ্কা। তাদের হারাতে পারলেই পাওয়া যাবে সুপার ফোরের টিকিট। এ ম্যাচ যে কোনো উপায়ে জেতা চাই বাংলাদেশের। ম্যাচের আগে ক্রিকেটারদের অনুপ্রেরণা দিতে তাই তাদের টিম হোটেলে সশরীরে উপস্থিত হন নাজমুল হাসান পাপন, জালাল ইউনুসসহ বোর্ডের একাধিক কর্মক'র্তা।

এ বিষয়ে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জালাল বলেন, ‘খেলার কৌশল নিয়ে মূলত ক্রিকেটারদের সঙ্গে কথা হয়েছে। কার কী' করণীয়, কার কী' ভূমিকা থাকবে সেটা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। বিষয়গুলো তারা ভালো'ভাবে বুঝেছে। তাদের বলা হয়েছে, বিষয়গুলো যেন মাঠে সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করা হয়।’

আ'ফগা'নিস্তানের বিপক্ষে হার এখন অ'তীত। সে সব নিয়ে আর চিন্তিত নন সাকিব-মুশফিকরা। তাদের সব চিন্তা এখন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচকে ঘিরে। আগের ম্যাচের হতাশা ঝেড়ে ক্রিকেটাররা এখন ফুরফুরে মেজাজে আছেন। প্রথম ম্যাচের একাদশে কোনো পরিবর্তন আসবে কি না সে বিষয়ে স্পষ্ট কোনো বার্তা অবশ্য দেননি জালাল।

তিনি বলেন, ‘খুব পজিটিভ মুডে আছে সবাই। আশা করি ম্যাচটা ভালো হবে। কোনো পরিবর্তন থাকলে সেটা টিম ম্যানেজমেন্ট, নির্বাচকরা বসে ঠিক করবে।’

শারজাহ ক্রিকে'টে স্টেডিয়ামের পরিসংখ্যান বিবেচনায় টস জিতে ব্যাট নিয়ে ধোঁকা খেয়েছে বাংলাদেশ। স্পোর্টিং উইকে'টে তিন পেসার খেলালেও কার্যত স্পিনাররাই এগিয়ে ছিল মাঠের ল'ড়াইয়ে। এদিকে লঙ্কা বধে বাংলাদেশ নামবে দুবাইয়ের মাঠে। এখানকার কন্ডিশন আবার শারজাহ থেকে একেবারে ভিন্ন। তাই পরিকল্পনাটাও সাজাতে হবে সেভাবে। জালাল বলেন, ‘শারজাহ আর দুবাইয়ের মাঠের উইকেট একই না। দুবাইয়ের জন্য পরিকল্পনা পুরোপুরোই ভিন্ন।’

এশিয়া কাপে এখন পর্যন্ত তিন ম্যাচ হয়েছে দুবাইয়ের মাঠে। এখানে পেসাররা সুবিধা পেয়েছে বেশি। আবার পিছিয়ে ছিলেন না স্পিনাররাও। তিন ম্যাচে পেসাররা শিকার করেছেন ২০ উইকেট। বিপরীতে স্পিনারদের শিকার ১০ উইকেট। এ পিচে হংকংয়ের বিপক্ষে ভা'রত দুইশ’র কাছাকাছি ইনিংস খেলেছে, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আ'ফগা'নিস্তান ১০.১ ওভা'রে ১০৬ রান তুলেছে। আবার ভা'রত-পা'কিস্তান ম্যাচে রান এসেছে ধীরগতিতে। সুতরাং ব্যাটিং কিংবা বোলিং সবকিছু সাজাতে হবে নিখুঁত পরিকল্পনায়।

দুবাইয়ে গ্রুপ ‘বি’ এর ম্যাচে বৃহস্পতিবার (০১ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় লঙ্কা বধে মাঠে নামবে সাকিব বাহিনী।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!