রাজধানীতে সিগন্যালে আ'ট'কে থাকা বাসে ছিনতাইয়ের চেষ্টা

রাজধানীর তেজগাঁওয়ের আসাদগেট এলাকায় ফিল্মি স্টাইলে ছিনতাইয়ের চেষ্টা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৮ অক্টোবর) সন্ধ্যা নামা'র আগে গাড়িতে পরিপূর্ণ রাস্তায় এমন ছিনতাইয়ের দৃশ্যে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন বাসের যাত্রীরা।

এদিকে পুরান ঢাকার বাসিন্দা জর্ডান আসিফ নামের এক তরুণ মোবাইলে পুরো বিষয়টি ভিডিও করেন। পরে ফেসবুকে তার আইডিতে আপলোড করলে অল্প সময়ের মধ্যেই সেটি ভাই'রাল হয়ে যায়। ১ মিনিট ২১ সেকেন্ডের ভিডিওতে দেখা যায়, কয়েকজন তরুণ যানজটের মধ্যে ছোটাছুটি করছেন। তাদের হাতে ধারালো অ'স্ত্র।

ঘটনার বিষয়ে জানতে আসিফের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় একটি বাসে করে বাসায় ফিরছিলাম। তখন সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা। বাসটি আসাদগেট মোড়ে এসে থামলে কয়েকজন ছে'লে আমাদের বাসের এক যাত্রীর মোবাইল টান দেওয়ার চেষ্টা করে। এই সময়ে তিনি চিল্লাচিল্লি করলে ছে'লেদের কোম'রে থাকা ছু'রি বের করে কোপ দেওয়ার চেষ্টা করে।

তিনি বলেন, এ সময়ে বাসের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এরপর যাত্রীরা চি'ৎকার করে চালকের সহকারী ও কন্ডাক্টরকে দরজা আ'ট'কে দিতে বলেন। কিন্তু অ'স্ত্র হাতে ছে'লেগুলো সব বাসে হা'মলা করে ভাঙচুর করার চেষ্টা করে। এমন সময় ট্রাফিক সিগন্যাল ছেড়ে দেয়, চালক গাড়ি দ্রুত টান দেন। ব্যস্ত রাস্তায় এমন ছিনতাইয়ের ঘটনা দেখে যাত্রীরা সব ভ'য়ে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন।

তিনি সাধারণত মোটরসাইকেলে যাতায়াত করেন। কিন্তু বোন অ'সুস্থ থাকায় সেদিন তাকে হাসপাতা'লে রেখে বাসে ফিরছিলেন। যারা বাসের নিয়মিত যাত্রী, তারা বলছিলেন, এই জায়গায় এ রকম তরুণেরা প্রায়ই ঘোরাফেরা করেন এবং সুযোগ পেলেই মোবাইল টান দিয়ে নিয়ে যান।

ভিডিওতে বাসের যাত্রীদের একজনকে বলতে শোনা যায়, কত বড় চাকু হাতে দেখছেন, এই দিন-দুপুরে বাসে ডা'কাতি! মানুষের জানমালের কোনো নিরাপত্তা নাই। আরেকজন যাত্রী বলেন, পু'লিশ দেখলো, একটা বাঁশি ফুঁ দিলো আর চইলা গেলো। আর ওরা তো চাকু নিয়া ঘুরতাছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে তেজগাঁও বিভাগের উপ-পু'লিশ কমিশনার (ডিসি) এইচ এম আজিমুল হক বলেন, বিষয়টি নিয়ে এরই মধ্যে আম'রা কাজ শুরু করেছি। জ'ড়িতদের আইনের আওতায় আনতে ঘটনাস্থলের সিসিটিভি ফুটেজ ও ভিডিওটি পর্যালোচনা করা হচ্ছে।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!