নারীকে টেনে নেওয়া সেই গাড়িটি চালাচ্ছিলেন ঢাবির সাবেক শিক্ষক

রাজধানীর শাহবাগে প্রাইভেট কারের চাপায় এক নারীর ম'র্মা'ন্তিক মৃ'ত্যু হয়েছে। মা'রা যাওয়া পথচারী নারীর নাম রুবিনা আক্তার (৪৫)। আর এই দুর্ঘ'টনার সময় প্রাইভেট কারটির চালকের আসনে ছিলেন আজহার জাফর শাহ নামে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক স'ম্পর্ক বিভাগের সাবেক সহযোগী অধ্যাপক।

জানা যায়, অ'ভিযু'ক্ত এই সাবেক শিক্ষককে ২০১৮ সালে তাকে চাকরিচ্যুত করেছিল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।এর আগে আজ শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টার দিকে ঢাবির চারুকলা অনুষদের সামনে জাফর শাহের প্রাইভেট কারের ধাক্কায় সামনের মোটরসাইকেল থেকে পড়ে যান ওই নারী।প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ওই নারী প্রাইভেট কারের বাম্পারে আ'ট'কে যান। তখন গাড়ি না থামিয়ে দ্রুতগতিতে চালিয়ে যান চালক। তাকে ধাওয়া করে নীলক্ষেত মোড়ের কাছে ধরে ফেলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এ সময় ওই নারীকে জীবিত উ'দ্ধার করা হলেও ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতা'লে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃ'ত্যু হয়।

নি'হত নারী রাজধানীর তেজগাঁও এলাকার বাসিন্দা। দেবরের মোটরসাইকেলে চড়ে হাজারীবাগে বাবার বাসায় ফিরছিলেন তিনি। প্রাইভেট কার আ'ট'কে ওই নারীকে উ'দ্ধারের সময় গাড়ির চালককে বেদম মা'রধর করেন বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। এ সময় তিনি নিজেকে ঢাবির আন্তর্জাতিক স'ম্পর্ক বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আজহার জাফর শাহ বলে পরিচয় দিয়েছিলেন।

বর্তমানে ঢামেক হাসপাতা'লে চিকিৎসাধীন রয়েছেন পঞ্চাশোর্ধ্ব জাফর শাহ। তার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গো'লাম রব্বানী বলেন, ক্লাসসহ একাডেমিক কার্যক্রমে নিষ্ক্রিয়তার অ'ভিযোগে ২০১৮ সালে আজহার জাফর শাহকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চাকরিচ্যুত করা হয়। তার বাসা কোথায়, তা জানা নেই। এ ঘটনায় আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেবে।এ ঘটনায় উত্তেজিত জনতা গাড়িচালককে গণপি'টুনি দেয় এবং গাড়িটি ভাঙচুর করে। খবর পেয়ে পু'লিশ এসে চালককে উ'দ্ধার করে এবং হাসপাতা'লে নিয়ে যায়।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!